Others

রান্নাঘরের ৬টি মশলা ত্বকের যত্নে

রান্নার স্বাদ, গন্ধ বৃদ্ধিতে মশলার জুড়ি নেই। একেক মশলা রান্নায় একেক স্বাদ এনে দেয়। মশলার কাজ কি শুধু স্বাদ বৃদ্ধি? ত্বক পরিচর্চায়ও রয়েছে দারুন কিছু ব্যবহার। অবাক হচ্ছেন? অবাক হওয়ার কিছুই নেয়। রান্নার পরিচিত মশলা হলুদ, ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি থেকে শুরু করে ত্বকের দাগ পর্যন্ত দূর করে থাকে। শুধু হলুদ নয়, আরও কিছু মশলা রয়েছে যা ত্বকের নানান সমস্যা দূর করে দেয়।

১। দারুচিনি

মাংস রান্নার অপরিহার্য উপাদান দারুচিনি। এর অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি এবং অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান ব্রণ এবং ব্রণের ব্যাকটেরিয়া দূর করতে সাহায্য করে। দারুচিনির গুঁড়ো এবং মধু মিশিয়ে নিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন । এটি ত্বকে ব্রণের স্থানে ব্যবহার করুন। ব্রণ কমাতে এই পেস্টটি বেশ কার্যকর। এছাড়া লিপবামের সঙ্গে কিছুটা দারুচিনির গুঁড়ো মিশিয়ে ঠোঁটে ব্যবহার করুন। এটি ঠোঁটে রক্ত চলাচল বজায় রাখে।

২। হলুদ

ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে হলুদের প্যাক বেশ কার্যকর। একটি পাত্রে ১ চা চামচ বেসন এবং ১/৪ চা চামচ হলুদের গুঁড়ো একসঙ্গে মেশান। এর সাথে কিছুটা দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই প্যাকটি মুখ এবং ঘাড়ে স্ক্রাব করে লাগান। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে থাকে।

৩। লবঙ্গ

এক চা চামচ মুলতানি মাটির সঙ্গে ৩-৪টি লবঙ্গের গুঁড়ো মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এটি ত্বকে ভাল করে লাগান। বিশেষত ব্রণের স্থানে এই প্যাকটি লাগান। কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এছাড়া দ্রুত ফল পাওয়ার জন্য এতে পানি মেশাতে পারেন।

৪। গোল মরিচ

ব্ল্যাক হেডসের যন্ত্রণায় পড়েন নি, এমন মেয়ে খুঁজে পাওয়া যাবে না। এই ব্ল্যাক হেডস থেকে রক্ষা পেতে সাহায্য করবে গোল মরিচ। এক চা চামচ টকদইয়ের সাথে এক টেবিল চামচ গোল মরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এটি ত্বকে ম্যাসাজ করে লাগান। কিছুক্ষণ পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৫। জাফরান

আদিকাল থেকে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে জাফরান বেশ জনপ্রিয়। জাফরান এবং দুধ একসাথে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এটি ত্বকে ব্যবহার করুন। কিছুদিনের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পারবেন।

৬। রসুন

ব্রণ দূর করতে রসুনও বেশ কার্যকর। রসুনের পেস্টের সাথে মধু মিশিয়ে সেটি ব্রণে ব্যবহার করুন। এরসঙ্গে এক চিমটি হলুদ মেশাতে পারেন। রসুনের উপাদান এক নিমিষে ব্রণ দূর করে দেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *